/

ব্যাংক প্রস্তুতি : বাংলা সাজেশন্স

জব স্টাডি নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিতঃ ৪:০২ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০৩, ২০১৭

সমন্বিত ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতিকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে জব স্টাডি টুয়েন্টিফোর বিষয়ভিত্তিক ধারাবাহিক সাজেশন্স প্রকাশ করছে। ব্যাংকের বাংলা অংশে প্রশ্ন থাকে ২৫টি । ব্যাংকের বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্ন বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বিগত সালের প্রশ্ন থেকে প্রায়ই কমন পড়ে। তাই আমরা বিগত সালের প্রশ্নপত্রের আলোকে ধারাবাহিক সাজেশন্স প্রকাশ করছি । আজকের সাজেশন্সটি তৈরির জন্য আমরা জনতা ব্যাংক ( Executive Officer) ২০১৭ (সকাল ও বিকাল) , অগ্রণী ব্যাংক (সিনিয়র অফিসার) ২০১৭    ইত্যাদি প্রশ্নপত্রের সাহায্য নিয়েছি।   আজকে বাংলা বিষয়ে ১ম পর্ব প্রকাশিত হচ্ছে। জব স্টাডি টুয়েন্টিফোর ডট কমের সাথেই থাকুন।

 

সতর্কতা!!

পোস্টটি জব স্টাডি টুয়েন্টিফোর ডট কম এর পূর্ব অনুমতি ব্যতিত যদি কোন ব্যক্তি বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠান অন্য কোথাও যেমন- ফেসবুক বা অন্য কোন পোর্টালে প্রকাশ করেন তাহলে উক্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানে বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোন ধরণের ক্ষমা বা মুচলেকা গ্রহণযোগ্য হবে না।

 

বাংলা সাহিত্য: সাধনা পত্রিকার প্রথম সম্পাদক হলেন সুধীন্দ্রনাথ ঠাকুর। আখতারুজ্জামান ইলিয়াস রচিত গ্রন্থ হচ্ছে সংস্কৃতির ভাঙা সেতু। ব্রজবিলাস গ্রন্থের রচয়িতা হলেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর। হাসানা হাফিজুর রহমান রচিত কাব্যগ্রন্থ ভবিতব্যের বাণিজ্যতরী।  ‘বাংলা ভাষার উৎপত্তি মাগধি প্রাকৃত থেকে’ এই উক্তিটি  করেছেন সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়। জলাঙ্গী মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস। আরণ্যক জীবনভিত্তিক উপন্যাস।চর্যাপদের কবি ভুসুকুপা নিজেকে বাঙালি বলে পরিচয় দিয়েছেন। নূরুল মোমেনের ‘নেমেসিস’ হচ্ছে নাটক। পুঁথি সাহিত্যের প্রাচীনতম লেখক হলেন ফকির গরিবুল্লাহ। মুসলিম রেনেসাসেঁর কবি ফররুখ আহমদ। চলিত রীতির প্রবর্তক প্রমথ চৌধুরী। ‘পঞ্চতন্ত্র’ সৈয়দ মুজতবা আলীর রচনা।

 

বাংলা ব্যাকরণ:  পীতাম্বর যোগরূঢ় শব্দ। যোগরূঢ় শব্দ বলতে বুঝায়- সমাস নিষ্পন্ন যে সকল শব্দ সম্পূর্ণভাবে সমস্যমান পদসমূহের অনুগামী না হয়ে কোনো বিশিষ্ট অর্থ গ্রহণ করে। শুদ্ধ বানান:  দুর্গা, পুণ্য, স্বায়ত্তশাসন, সমীচীন, দুর্বার, মুমূর্ষু, সান্ত্বনা, শরীরী,  সমীচীন, সংস্রব, সত্তা, মহত্ত্ব, মহীয়সী, মরূদ্যান, ভস্ম, অপরাহ্ণ, সস্ত্রীক, গড্ডলিকা, আদ্যাক্ষর । ইদানীংকালে এর শুদ্ধরূপ ইদানীং, সকলশিক্ষকবৃন্দ এর শুদ্ধরূপ সকল শিক্ষক বা শিক্ষকবৃন্দ, একত্রিত এর শুদ্ধরূপ একত্র।    কুর্নিশ শব্দের উৎস ভাষা হচ্ছে তুর্কি।  রথদেখা হচ্ছে তৎপুরুষ সমাস। ‘যদি তারে নাই চিনি গো, সে কি আমায় নেবে চিনে।’ এটি একটি জটিল বাক্য। স্নান> সিনান হচ্ছে বিপ্রকর্ষ  ধ্বনি পরিবর্তন।  ছাপাখানা শব্দের ‘খানা’ হচ্ছে  বিদেশি তদ্ধিত প্রত্যয়। সমাবর্তন শব্দে মোট ৪টি অংক্ষর।  বিদেশী উপসর্গযুক্ত শব্দ হচ্ছে হরবোলা। ‘রাত্রে লুচিমুচি কিছু খাইনে, স্রেফ ভাত।’ এই বাক্যে ‘লুচিমুচি’ শব্দদ্বৈত ‘অনীহা’ ভাব প্রকাশ করেছে। ‘বাংলাদেশ যেন জয়লাভ করে।’-এই প্রার্থনাসূচক বাক্য। ‘সৌম’ শব্দের বিপরীত শব্দ হচ্ছে উগ্র। ‘Notification’ শব্দের বাংলা পরিভাষা হচ্ছে প্রজ্ঞাপন। ‘এক যে ছিল রাজা’-এখানে ‘যে’ এর ব্যবহার হচ্ছে অলংকারসূচক।  ‘জল’ শব্দের সমার্থক শব্দ হচ্ছে উদক। ‘চঞ্চল’-এর বিপরীত শব্দ অবিচল।  নিত্য মূর্ধন্য-ণ-বাচক শব্দ হচ্ছে বিপণি। ‘গোঁফ খেজুরে’ বলতে বুঝায় ‘প্রকৃতই অলস’। ’বিভাবরী’ অর্থ রাত্রি। ‘চক্ষুদান করা’ বাগধারাটির অর্থ চুরি করা। অন্ত: + তল = অন্তস্তল । ’সভা’ কেবল বহুবচনজ্ঞাপক প্রাণিবাচক শব্দের সঙ্গে যুক্ত হতে পারে। ‘নিয়ম বহির্ভূত অথচ প্রচলিত’- সনাতন ব্যাকরণে ’নিপাতনে সিদ্ধ’ নামে পরিচিত। ’লাবণ্য’ শব্দ থেকে এসেছে ‘লাবণি’ শব্দ। ’সেলফি’ শব্দটি বাংলা ভাষায় সবশেষে প্রবেশ করেছে। শঙ্খী শব্দটি পুরুষবাচক এবং শঙ্খিনী শব্দটি স্ত্রীবাচক। ‘স্বচ্ছন্দ’ বিশেষণ পদের বিশেষ্যরূপ হচ্ছে স্বাচ্ছন্দ্য। ‘শিতকর’ শব্দের অর্থ  চাঁদ। আকাশ ও পৃথিবীর অন্তরালকে এক কথায় বলে রোদসী। উপাচার্য  এর ‘উপ’ এখানে ‘সহকারী’ অর্থে প্রযুক্ত হয়েছে। সপত্নী ‘নিত্য নারীবাচক’ শব্দ। দুটি সমার্থক বা প্রায়-সমার্থক শব্দ সহযোগে গঠিত শব্দকে বলা হয় শব্দদ্বৈত। ’ডালে ডালে কুসুম ভার’ এখানে ‘সমূহ’ অর্থ প্রকাশ করেছে । বিভক্তিহীন নাম শব্দকে ’প্রাতিপাদিক’ বলে। ‘জঙ্গম’ শব্দের বিপরীত শব্দ স্থাবর। ডাল-ভাত ভিন্নার্থক শব্দযোগে দ্বিরুক্ত শব্দ।  ‘মালা’ শব্দের স্ত্রীলিঙ্গ মালিকা। ‘অম্বু’ শব্দের অর্থ পানি। ‘ যে নারীর স্বামী ও পুত্র নেই’- বাক্য সংকোচন অবীরা। ’ষষ্ঠ’ এর সন্ধিবিচ্ছেদ ষষ্ + থ । ‘কার্তুজ’ পর্তুগিজ ভাষা থেকে এসেছে। ’রাম’ খাঁটি বাংলা উপসর্গ । ‘বুলবুললিতে ধান খেয়েছে খাজনা দিব কিসে’-এ বাক্যে ‘বুলবুলিতে’ এ বাক্যে ‘বুলবুলিতে’ কর্তায় ৭মী। ‘মহানবী’ কর্মধারয় সমাস। ‘মণিকাকাঞ্চন যোগ’ এর সমার্থক বাগধারা ’সোনায় সোহাগা’।

 

সাজেশন্সটির পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে চাইলে গ্রুপের লিংকে ক্লিক করুন> বাংলা সাজেশন্স (গ্রুপ ফাইল সংরক্ষিত) ক্লিক করুন