/

৩৮ তম বিসিএস প্রিলি. প্রস্তুতি- গনিত নিয়ে কিছু কথাঃ

মো: রুকুনুজ্জামান রাসেল

প্রকাশিতঃ ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ০৭, ২০১৭

আরিয়ান আহমেদঃ চাকুরীর পরীক্ষায় গণিতে ভালো করতে পারলে অনেকটা এগিয়ে যাবেন, গণিত নিয়ে ভয় রাখা যাবেনা, আপনি যে বিষয়ে ভয় পাবেন সে বিষয়ে বেশি সময় দেয়ার চেষ্টা করবেন । কোন বিষয় বাদ দেয়া যাবেনা, সব বিষয়ে সমান পারদর্শী হবার চেষ্টা করতে হবে । প্রিলিমিনারি পরীক্ষাতে যেসব বিষয়ে আপনাকে পারদর্শী হতেই হবে এর মধ্যে গনিত অন্যতম । গনিত, ইংরেজি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, এসব বিষয়ে দক্ষ থাকলে ভালো । হাতে অস্ত্র থাকলেই তো আর হয়না , অস্ত্রটা সঠিকভাবে সঠিক সময়ে চালনা করাটাও জানতে হবে । তেমনি শুধু স্টাডি করলেই হয়না , স্টাডিটাকে প্রয়োগ করার দিকে বেশি নজর দিতে হবে । গনিত , বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি , মানসিক দক্ষতা এসব বিষয়ে অনেক বেশি নাম্বার পাওয়া সম্ভব । যারা এসব বিষয়ে নাম্বার এগিয়ে রাখতে পারবেন তাদের জন্য অনেক সুবিধা হবে মানে অন্যান্য বিষয়ের অপর চাপ কমে যাবে । পরীক্ষাতে কখনোই সব প্রশ্ন পারার চেষ্টা করতে হয়না । যেগুলো সহজ এবং একবারে পারার মত সেগুলোর দিকে নজর দিন ,তাহলেই দেখবেন সমস্যা হচ্ছেনা । প্রিলিতে খেয়াল করে দেখবেন যত নাম্বার পেলে চান্স হয়, তা আপনি পরীক্ষার হলে কঠিন প্রশ্ন গুলো বাদ দিয়েই অনায়াসে তুলতে পাচ্ছেন , কিন্তু সমস্যাটা হয় কঠিন প্রশ্ন নিয়ে মাথা ঘামানো এবং না পারার মত প্রশ্ন নিয়ে চিন্তা করার কারনে সময়ও নষ্ট হয়, আবার মাথাটাও গরম হয়ে যায় । যাইহোক গনিত নিয়ে দেখা যায় অনেকেরই টুকটাক সমস্যা থাকে , তবে সবার না । প্রিলিমিনারি পরীক্ষার জন্য যদি আপনি ভালমতো গনিত প্রস্তুতি নিতে পারেন তাহলে ব্যাংকসহ অন্যান্য অনেক চাকুরীর পরীক্ষার গনিত অংশটুকু অনেকটা cover হয়ে যায় । প্রিলি তে গনিতে ভালো করার জন্য যেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারেন —

 

১ — প্রথমেই বিগত বছরের প্রিলির গনিত প্রশ্নগুলো বুঝে বুঝে সমাধান করে ফেলুন । যখন সমাধান করতে যাচ্ছেন তখন অবশ্যই maximum চেষ্টা করবেন math সমাধান করার । যখন নিতান্তই পারছেন না তখন solution দেখবেন । বিগত বছরের প্রশ্নগুলো সমাধান করলে আপনার প্রায় অর্ধেক কাজ শেষ হয়ে যাবে ।

 

২ — গনিত চর্চা না করে যদি শুধু দেখে যান, তাহলে আপনার উপকার হবেনা । গনিত যে টাইপের প্রশ্ন দেখুন না কেন তা একবার সমাধান করে ফেলার চেষ্টা করবেন । আপনি গনিতের এস এস সির বই থেকে বীজগণিতের কমন সূত্রগুলো অধ্যায় ভিত্তিক দেখে ফেলুন, এরপর পরিমিতি ,ত্রিকোণমিতি এবং জ্যামিতির বেসিক সুত্র এবং থিউরি দেখে ফেলুন । প্রিলিতে খুব বড় math সাধারনত আসেনা , আর যদি খুব বেশি বড় math আসে সেগুলোকে avoid করে যাওয়াটাই ভালো হবে । এছাড়া অষ্টম শ্রেণীর বই থেকে পাটিগণিতের অধ্যায়ভিত্তিক সূত্রগুলো দেখে নিন । আপনার যদি বিশেষ কোন math বুঝতে সমস্যা হয় তবে শুধু এটুকু দেখে ফেলুন যে সেই টাইপের math এর সমাধানটা কিভাবে হয় । সব বোঝাও লাগেনা

 

৩ — গনিত প্রিলির জন্য বিভিন্ন গাইড বইও বাজারে আছে যেমন mp3, প্রফেসরস , ওরাকল এসব যেকোনো গাইড থেকেও দেখতে পারেন তবে সেটা পরে । যেকোনো একটি বই ভালমতো সমাধান করে ফেলতে পারেন । আগে অষ্টম শ্রেণীর পাটিগণিত আর নবম-দশম শ্রেণীর বীজগণিত ও জ্যামিতি বই থেকে প্রতি অধ্যায় ভিত্তিক উদাহরণ আর সূত্রগুলোও দেখে ফেলুন । ছোট ছোট math গুলোর দিকে বেশি নজর দেবেন প্রিলির জন্য । আপনার যেন কমন সকল সূত্র জানা থাকে । আর লসাগু,গসাগু, অনুপাত, সংখ্যারেখা, সমাধান, ধারা, সেট , বাস্তব সংখ্যা, লগারিদম , সূচক, ঐকিক নিয়মের math, সুদকষা ইত্যাদির ছোট math গুলো যেন আপনার আয়ত্তে থাকে । কি টাইপের প্রশ্নগুলো সমাধান করবেন এই ধারণা আপনার শুরুতেই হয়ে যাবে যখন আপনি বিগত বছরগুলোর প্রিলির প্রশ্ন সমাধান করবেন ।

 

৪ — দৈনিক অল্প সময় হলেও গনিত চর্চা করুন । আর অনেকেই যারা বাসায় গিয়ে গনিতের স্টুডেন্ট পড়ায় তাদের জন্য অনেকটা সুবিধা হয় । আপনাদের কোন গনিত বুঝতে সমস্যা হলে আপনার বন্ধুদের মাঝে যে ভালো পারে তার সাহায্য নিন , আপনার নিজের সমস্যা নিজেকেই সমাধান করতে হবে, নিজে না পারলে অন্যের সাহায্য নিন । মোটামুটি কমন যেসব সূত্র আর সংশ্লিষ্ট math আছে সেগুলো সমাধানের চেষ্টা করবেন । দরকার হলে আপনি পাটিগণিত , বীজগণিত , ত্রিকোণমিতি, পরিমিতি এবং জ্যামিতির সূত্রগুলো একটি খাতায় লিখে ফেলুন । সূত্র জানা থাকলে প্রিলির জন্য math solve অনেকটা সহজ হয়ে যায় । প্রিলিতে math এ ভালো করার জন্য দরকার শুধু সূত্রের ওপর ভালো দক্ষতা আর ছোট ছোট বিভিন্ন ধরণের math কিভাবে করতে হয় সেটা জানা । বিগত বছরের প্রিলির প্রশ্ন ভালমতো বুঝে সমাধান করলে আপনি যেসব সমাধান করবেন ওই তাইপম্ন প্রশ্নে আপনি কখনো আটকে যাবেন না , প্রশ্ন কিন্তু অনেক repeat হয় ।

 

** দৈনিক ১ ঘণ্টা হলেও গনিত দেখতে থাকুন, টপিক ভিত্তিক ভাগ করে নিয়ে দেখতে পারেন । যেমন সেট, ধারা , সমাধান , সূচক , লগারিদম, অনুপাত, ঐকিক নিয়ম, সুদ-কষা, ফাংশন, জটিল সংখ্যা, বাস্তব সংখ্যা, ত্রিভুজের সুত্র, বহুভুজের সুত্র, বিন্যাস- সমাবেশ, সম্ভাব্যতা, সরলরেখার সূত্রগুলো একেকটা একেকদিন । এভাবে দেখতে পারেন । অথবা একটানা ১০ দিন সময় নিয়ে ১০ দিনের মধ্যে যতটুকু পারবেন প্রস্তুতি নিয়ে ফেলতে পারেন । প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সময় ভালমতো স্টাডি হলে সেটা আপনাকে লিখিত পরীক্ষাতেও সাহায্য করবে । সময় নষ্ট করবেন না, আজ থেকেই শুরু করে দিন । অল্প স্টাডি করুন কিন্তু perfect study করার চেষ্টা করবেন । কোন যেন lack না থাকে । সফল আপনি হবেনই । ভালো থাকবেন সবাই । good luck guys

 

লেখকঃ

আরিয়ান আহমেদ

Assistant commissioner of taxes

সুপ্রিয় পাঠক, সিলেবাসভিত্তিক পড়াশোনার জন্য এবং ফেসবুকে গ্রুপ স্টাডির জন্য যোগ দিন ‘ জব স্টাডি অফিসিয়াল’ গ্রুপে।