/

প্রযুক্তি বিশ্বের ক্ষমতাধর দম্পতিরা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিতঃ ৩:১৬ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ৩০, ২০২০

প্রেম, প্রণয় কিংবা ভালোবাসা—সম্পর্ক যেমনই হোক, এ বাঁধনে আটকা পড়েছেন কালজয়ী সব নর-নারী। প্রযুক্তি খাতসংশ্লিষ্টরাও এর বাইরে নন। প্রেম-ভালোবাসা অতঃপর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন প্রযুক্তি খাতের এমন ক্ষমতাধর দম্পতিদের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে বিজনেস ইনসাইডার। এ দম্পতিরা বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পদে থেকে প্রযুক্তি বিশ্বের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। বৈশ্বিক প্রযুক্তি খাতের ক্ষমতাধর দম্পতিদের নিয়ে আয়োজন।

ইভান স্পাইজেল ও মিরান্ডা কের: জনপ্রিয় ছবি শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন স্ন্যাপচ্যাটের প্যারেন্ট কোম্পানি স্ন্যাপ ইনকরপোরেশনের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইভান স্পাইজেল। অন্যদিকে মিরান্ডা কের বিশ্বের অন্যতম সর্বাধিক পারিশ্রমিক নেয়া মডেল। ২০১৫ সালে ডেটিং শুরু এবং ২০১৭ সালে এ জুটি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের একটি ছেলে রয়েছে, ২০১৮ সালের মে মাসে তার জন্ম হয়।

জোশুয়া কুশনার ও কার্লি ক্লোস: ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম থ্রাইভ ক্যাপিটালের প্রতিষ্ঠাতা ও হেলথ ইন্স্যুরেন্স স্টার্টআপ অস্কার হেলথের সহপ্রতিষ্ঠাতা জোশুয়া কুশনার। অন্যদিকে কার্লি ক্লোস একজন প্রখ্যাত মডেল, যে মেয়েদের জন্য ‘কোড উইথ ক্লোস’ নামে কোডিং ক্যাম্পেইন পরিচালনা করে আসছেন। ২০১২ সাল থেকেই এ জুটির মধ্যে ঘনিষ্ঠতা। ২০১৮ সালের অক্টোবরে এ জুটি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।র্

বিজ্ঞাপন

প্রিসিলা চ্যান ও মার্ক জাকারবার্গ: সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ। বিজ্ঞান ও শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে প্রিসিলা চ্যান-জাকারবার্গ দম্পতি ‘চ্যান জাকারবার্গ ইনিশিয়েটিভ’ নামে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান চালু করেন। ২০০৩ সালে জাকারবার্গ যখন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, তখন প্রিসিলা চ্যানের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎ করেন। ২০১২ সালে ফেসবুক পাবলিক কোম্পানিতে রূপান্তরিত হওয়ার পরদিন আকস্মিক বিয়ে করেন এ জুটি। এ দম্পতির দুই মেয়ে রয়েছে, যাদের জন্ম যথাক্রমে ২০১৫ ও ২০১৭ সালে।

সেরেনা উইলিয়ামস ও অ্যালেক্সিস ওহানিয়ান: সামাজিক সংবাদ মাধ্যম রেডিট ও ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম ইনিশিয়ালাইজড ক্যাপিটালের সহপ্রতিষ্ঠাতা অ্যালেক্সিস ওহানিয়ান। অন্যদিকে বিশ্বের অন্যতম টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে রোমে ছুটি কাঠাতে গিয়ে এ জুটির প্রথম সাক্ষাৎ হয়। ২০১৬ সালে রোমের যেখানে তারা প্রথম দেখা করেছিলেন, সেখানেই বাগদান সেরে ফেলেন এ জুটি। ২০১৭ সালের এ দম্পতির ঘরে আসে জমজ কন্যা সন্তান।

বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস: মার্কিন সফটওয়্যার কোম্পানি মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিল গেটস। তার আরো একটি পরিচয় হলো—তিনি বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি। ২০০০ সালে মেলিন্ডা গেটস স্বামীর সহায়তায় ‘দ্য বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’ প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৮৭ সালে মেলিন্ডা গেটস মাইক্রোসফটে পণ্য ব্যবস্থাপক হিসেবে যোগদান করেন। মাইক্রোসফটের এক পিকনিকে মেলিন্ডা গেটসকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন বিল গেটস। বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার আগে সাত বছর প্রেম করেন এ জুটি।

মারিসা মেয়ার ও জ্যাচারি বগ: ইন্টারনেট কোম্পানি ইয়াহুর সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও লুমি ল্যাবসের সহপ্রতিষ্ঠাতা মারিসা মেয়ার। তিনি সার্চ জায়ান্ট গুগলের প্রথম ২০ কর্মকর্তার একজন। অন্যদিকে জ্যাচারি বগ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম ডাটা কালেক্টিভের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা অংশীদার। ২০০৭ সালে এক মিউচুয়াল বন্ধুর মাধ্যমে এ জুটির প্রথম দেখা হয়। এর দুই বছর পর তারা বিয়ে করেন। ২০১২ সালে যেদিন ইয়াহুর সিইও হিসেবে মেয়ারের নাম প্রথম ঘোষণা করা হয়, সেদিনই প্রথম জনসম্মুখে প্রেগন্যান্সির কথা জানান তিনি।